বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ভোলা জেলা

ক) ঐতিহাসিক প্রত্নতাত্বিক ও স্থাপত্য

 

পর্যটন আকর্ষণের নাম ও বর্ণনা

 

১. চরাঞ্চল :

দেশের দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত পানিবেষ্টিত দ্বীপে ভোলা জেলাটি অবস্থিত। এই দ্বীপের আনুমানিক বয়স প্রায় তিন হাজার বছর। দ্বীপটি ছিল প্রাচীন বাকলা এলাকার অংশবিশেষ। দক্ষিণে চরাঞ্চল গুলির অপরূপ সৌন্দর্য্য সবাইকে আকৃষ্ট করে এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য মেঘভাষান, আইচা, লেতরা, নীল কমল, কচ্ছপিয়া, চরমঙ্গল, চরকিশোর, মায়ারচর, চর ফকিরা, লক্ষ্মীপক্ষী এছাড়াও ভোলা শহরে আছে-কবি মোজাম্মেল হকের তোরণ, হাসান নগর ইত্যাদি।

 

২. মনপুরা দ্বীপ :

চারিদিকে মেঘনা নদী মাঝখানে মনপুরা দ্বীপ। বড়ই আকর্ষণীয় জায়গা মনপুরা। মেঘনার ভাঙ্গনে মনপুরা ভাঙ্গছে আর অন্যদিকে চর জাগছে। মেঘনা হয়ে যখন ট্রলার কিংবা সি-ট্রাক চলে তখন একপাড় থেকে অন্য পাড় দেখা যায়না। মনে হয় এ যেন অথৈ সমূদ্র। মনপুরার দক্ষিণে মেঘনা নদী গিয়ে মিশেছে বঙ্গোপসাগরে। ১৯৭০ সালের ১২ নভেম্বর জলোচ্ছাসে মনপুরা দ্বীপ তছনছ হয়ে গিয়েছিল। মনপুরার কয়েক মাইল দুরে রয়েছে ছোট ছোট হাটবাজার। চরসাকুটিয়ার মনোরম দৃশ্য মন কেড়ে নেয়। বনবিভাগ এখানে গাছপালা লাগিয়ে বিশাল বনাঞ্চল গড়ে তুলেছে। এসব বনাঞ্চল বারবার দেখেও মনের আশা পূরণ হয়না। 

 

খ) ধর্মীয়

 

পর্যটন আকর্ষণের নাম ও বর্ণনা

 

১. উজির আলী শাহ্ দরগা :

ভোলায় রয়েছে হযরত উজির আলী শাহ্ করণীর (রহঃ) দরগা ও মাজার শরীফ।


Share with :

Facebook Facebook