বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১১ জুলাই ২০২০

জয়পুরহাট জেলা

 

ক) ঐতিহাসিক, প্রত্নতাত্ত্বিক ও স্থাপত্য নিদর্শন :

পর্যটন আকর্ষণের নাম ও বর্ণনা :

 

১. পাথরঘাটা বা মাহীগঞ্জ :

জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার তুলসীগঙ্গা নদীর দুপাশে প্রায় ৯ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে পাথরঘাটা নামে যে প্রত্নস্থল, তা কোন একক প্রত্নস্থল নয়, বরং একাধিক প্রত্নঢিবি নিয়ে গঠিত একটি যৌগিক প্রত্নস্থল। পাথরঘাটার   বিস্তীর্ণ অঞ্চলে মৃৎপাত্রের খন্ডাংশ, গে¬ইজড মৃৎপাত্রের টুকরা, ইট, ইটের টুকরা, পোড়ামাটির ফলক, পাথরের ভাস্কর্য এবং অন্যান্য প্রত্নবস্ত ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। তুলসীগঙ্গা নদীগর্ভের একস্থানে বেশকিছু ভারী পাথরখন্ড দেখা যায় এবং এ থেকে মনে করা হয় যে, সেখানে অতীতে একটি প্রস্তরনির্মিত সেতু বা ঘাট ছিল। প্রচুর পরিমাণে পাথরের টুকরা পরিলক্ষিত হওয়ায় মনে করা যেতে পারে যে, পাথরঘাটা অঞ্চলে একটি প্রস্তর ভাস্কর্য নির্মাণ কেন্দ্র ছিল। পাথরঘাটা প্রত্নস্থলের ইতিহাস সঠিকভাবে জানা যায়নি। তবে উত্তর ভারতীয় কালো মসৃণ মৃৎপাত্রের কয়েকটি খন্ডাংশ এবং একটি কুষাণ রীতির দের্বমূর্তির উপর ভিত্তি করে পাথরঘাটাকে আদি ঐতিহাসিক যুগের বলে অভিহিত করা যায়। এখানে প্রাপ্ত কিছু প্রত্নবস্তু গুপ্ত, পাল এবং সেন আমলের অন্তর্ভূক্ত ছিল।

 

২. হারুঞ্জা ধাপঃ

জয়পুর হাটের কালাই উপজেলায় অবস্থিত এই ঢিবি। ইহা একটি প্রাচীন মাজার শরীফ।এই মাজার সম্পর্কে বিশেষ কিছু জানা যায়নি তবে এখানে প্রতিদিন শতশত লোকের সমাগম হয়।

 

 

খ) ধর্মীয় :

পর্যটন আকর্ষণের নাম ও বর্ণনা :

 

১. বার শিবালয় মন্দির :

জয়পুরহাট শহরের ৪কিঃমিঃ উত্তর-পশ্চিমে বেলতলা গ্রামের পশ্চিমদিকে যমুনা নদীর পাড়ে একটি আয়তাকার চত্বর ঘিরে পাশাপশি সারিবদ্ধভাবে একই আকার ও স্থাপত্যশৈলীর বারটি মন্দির অবস্থিত। বার শিবালয় মন্দিরগুচ্ছ দেশের হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম তীর্থস্থান। এক-কোঠা ও এক-দুয়ার বিশিষ্ট প্রতিটি মন্দির একটি অপরিসরের বর্গাকার ভূমি-পরিকল্পনায় নির্মিত। তবে এগুলোর কোনটিরড়ায় রয়েছে রেখদেউল শিখর, কোনটির উপর আধাখোলা ছাতাকার শিখর এবং কোনটির উপর চার-পলাকার খর্বকায় শিখর। প্রতিটি মন্দিরের ভিতর একটি করে শিবলিঙ্গ রয়েছে।তাই এই স্থানকে বার “বারশিবালয়” বলা হয়ে থাকে। অন্যান্য প্রাচীন কীর্তির মতোই বেলআমলার মন্দির গুলো চুন-সুরকি ও চেপটা ইটের তৈরী। মন্দির সংলগ্ন ছোট যমুনা নদীতে প্রতিবছর  হিন্দু নর-নারীদেও পবিত্র বারুনীস্নান হয়ে থাকে। দুর-দুরান্ত থেকে সারাবচরই ভক্তরা  এই মন্দিরে আসের। এর প্রায় ৫০০মিঃ দক্ষিণ-পশ্চিমে পাশাপাশি অনুরুপ ৫টি কালীমন্দির রয়েছে।   এছাড়াও দক্ষিণ-পূর্বে ১কিঃমিঃ দূরে একটি হনুমান মন্দির রয়েছে।

 

 

গ) উৎসব  সম্পর্কিত :

পর্যটন আকর্ষণের নাম ও বর্ণনা :

 

১. শিবমেলা ও বারুনী স্নান :

জয়পুরহাট শহরের ৪ কিঃমিঃ উত্তর-পশ্চিমে বেলতলা গ্রামের পশ্চিমদিকে যমুনা নদীর পাড়ে বার শিবালয় মন্দির প্রাঙ্গনে কার্তিক মাসের অমাবস্যায় শ্যামাপূজা, শ্রাবণ মাসের শেষ পূর্ণিমার আগের সোমবারে মাড়ওয়ারীদের পূজা উৎসব এবং ফাল্গুনের শিব চতুর্দশীতে বিশাল বারুণী স্নান অনুঠিত হয় ।

 

 

 


Share with :

Facebook Facebook