বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৫

শুল্কমুক্ত বিপণী (বহির্গমন)

বিদেশগামী যাত্রীদের বিদেশযাত্রার শেষ মুহুর্তে প্রয়োজনীয় সামগ্রী সহজে ক্রয়ের লক্ষ্যে হযরত শাহ্ জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর, ঢাকা, শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, চট্টগ্রাম ও ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, সিলেট-এর বহির্গমন লাউঞ্জে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন সর্বমোট ০৩ (তিনটি) শুল্কমুক্ত বিপণী পরিচালনা করছে।  বিদেশগামী বিমান যাত্রীগণ ইমিগ্রেশন আনুষ্ঠানিকতা সমাপনান্তে ঢাকা, সিলেট ও চট্টগ্রামে অবস্থিত বিমান বন্দরসমূহের বহিগর্মন লাউঞ্জে স্থাপিত শুল্কমুক্ত বিপণীসমূহে শুল্কমুক্ত মূল্যে তাঁদের প্রয়োজনীয় এবং বিপণীসমূহে লভ্য পণ্য-সামগ্রী ক্রয় করতে পারেন। এসকল বিপণীতে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন (বাপক) কর্তৃক নিয়োজিত বিক্রয় কর্মকর্তাবৃন্দ এবং কাস্টমস কর্তৃপক্ষের নিয়োজিত কর্মকর্তা কর্তৃক যৌথ স্বাক্ষরের মাধ্যমে আমদানীকৃত বন্ডেড সামগ্রী শুল্কমুক্ত মূল্যে বিক্রয় করা হয়। সম্মানিত বিমান যাত্রীদের সুবিধার্থে এ বিপনীসমূহে বন্ডেড সামগ্রী ছাড়াও স্থানীয় পণ্য যেমন: হস্তজাত পণ্য, তৈরী পোষাক, সুভেন্যির সামগ্রী ইত্যাদি ও বিক্রয় করা হয়। এছাড়া সম্মানিত যাত্রীবৃন্দের জলযোগের সুবিধার্থে বিমানবন্দরসমূহের বহিগর্মন লাউঞ্জ সংলগ্ন কয়েকটি স্থানে স্ন্যাক্স কর্ণার স্থাপন করা হয়েছে।

আমদানীকৃত পণ্যঃ বিবিধ প্রকারের বিদেশ হতে আমদানীকৃত সিগারেট, হুইস্কি, ভদকা, রাম, জিন, বিয়ার, বিভিন্ন ধরনের চকলেট, সানগ্লাস, বিভিন্ন ব্র্যান্ডের পারফিউম, আফটার শেভ ইত্যাদি।

স্থানীয় পণ্যঃ মুক্তার তৈরী অলংকার, সিল্ক শাড়ী, জামদানী শাড়ী, কাতান শাড়ী, টাঙ্গা্ইল তাঁতের শাড়ী, খদ্দরের পোষাক, ফতুয়া, পাঞ্জাবী, সেলওয়ার-কামিজ, শাল, নকশী কাঁথা, নকশী করা বেডশীট, গ্রামীন চেকের পোষাক, বিভিন্ন ধরনের পাট ও চামড়ার ব্যাগ, অসংখ্য ধরনের সুভেন্যির ও শোপিস এবং আরো অনেক পণ্য।


Share with :
Facebook Facebook